Tasslock Xtreme

বাইকের শুধু ঘাড় লক না, সব লক ভেঙ্গে ফেল্লেও বাইক চুরি করতে পারবে না , বাইপাস করে তার জোড়া দিয়েও বাইক কিছু করতে পারবে না । এমনকি ব্যাটারির লাইন খুলে বা সম্পুর্ন ডিভাইস খুলে ফেল্লেও বাইক স্টার্ট হবে না ।

মাস্টার কি দিয়েও বাইক স্টার্ট দিতে পারবে না কেউ মালিক ছাড়া। এমন কি আসল চাবি দিয়েও স্টার্ট হবে না মালিকের অনুমতি ছাড়া।

ছিনতাইকারি বা ডাকাত বাইক নিয়ে কিছু দুরে গেলেই মালিক বাইক  সম্পুর্ন রুপে বন্ধ করতে পারবে। জোরালো শব্দ হবে এবং বাইক স্টার্ট হবে না।

ধাক্কা দিয়ে বা বাইক কোন ভ্যানগাড়িতে তুলে নেয়ার চেষ্টা করলে সাথে সাথে মালিকের সেন্সরে এলার্ম ও ভাইব্রেশন হবে।

০১. হর্ন বেজে উঠবে

০২. বাইকের এলার্ম বন্ধ বা সাইলেন্ট করা যাবে (মসজিদে বা মিটিংয়ে)

০৩. চব্বিশ ঘন্টা নোটিফিকেশন লাইট

০৪. ইমোবিলাইজার সিস্টেম

০৫. চাবির রিংয়ে এলার্ম এবং ভাইব্রেশন আসবে যদি কেই আপনার বাইক টাচ করে ।

০৬. রাস্তায় ডাকাত বা হাইজ্যাকার বাইক নিয়ে যেতে পারবে না । বাইক বন্ধ করতে পারবেন ।

০৭. TASS XTREME সিস্টেমের ভেতরে সেফটি ফিউজ দেয়া , যার কারনে বাইকের তারের কোন সমস্যা হলেও সিকিউরিটি কোনভাবেই বন্ধ হবে না ।

০৮. ইনডিকেটর লাইট এলার্ট ।

০৯. TASS XTREME  কেউ হ্যাক বা সেটার তার ছিড়ে ফেল্লেও ব্যাকআপ Power ব্যবস্তা থাকার কারনে আপনার চাবির রিংয়ে এলার্ট চলে যাবে এবং সেই এলার্ট আর বন্ধ হবে না  এবং বাইক স্টার্ট নিবে না ।

১০. আপনি যদি বাইকের কাজ টুকটাক জানেন তাহলে নিজে নিজেই ১৫ মিনিটে আমাদের TASS XTREME  লাগাতে পারবেন ।

১১. চোর যদি সিকিউরিটির তার কেটে ফেলে তাহলে  বাইক স্টার্ট হবে না ।

১২. TASS XTREME  রয়েছে ৫ টি সেনসিটিভিটি কন্ট্রোল । যার মাধ্যমে আপনি নিজেই বাইকের টাচ বা মুভমেন্ট নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন ।

১৩. মোবাইলের মতো আপনার মোটরবাইকও সাইলেন্ট মুড করা যাবে । বাইকে কোন এলার্ম বাজবে না , শুধু মাত্র আপনার চাবির রিংয়ে এলার্ম যাবে । এমন বাইকের আসল চাবি দিয়েও আপনার ঘনিষ্ট বন্ধু্‌ও আপনার বাইকটি চালাতে পারবে না আপনার অনুমতি ছাড়া ।

১৪. যদি সন্দেহ থাকে , রাতের বেলা গ্যারেজ থেকে আপনার বাইকের তেল চুরি হচ্ছে তাহলে TASS XTREME  থাকলে বাইকের তেল চোরও ধরা পড়বে (মুড ৫, সাইলেন্ট)

১৫. TASS XTREME  এর রিমোট এবং বাইকের আসল চাবি থাকলেও অপরিচিত কেউ বাইক স্টার্ট দিতে পারবে না ।

১৬. TASS XTREME  এর রিমোটে CHILD LOCK System রয়েছে । তাই কোন বাচ্চা বা ভুল বসত রিমোটে চাপ পড়ে গেলে লক বা আনলক কাজ করবে না ।

১৭. TASSLOCK Xtreme এর রেঞ্জ আমরা ২০ তলা ভবনের ছাদ থেকেও পেয়েছি  ।

১৮. পৃথিবীর কোন জ্যামার, রোলজ্যাম বা হ্যাকিং যন্ত্র দিয়ে TASS XTREME  হ্যাক করা সম্ভব নয় ।

১৯. যদি TASS XTREME  সম্পুর্ন রুপে ভেঙ্গে ফেলা হয় বা বিনষ্ট করে দেয়া হয় তার পরেও বাইক স্টার্ট নিবে না ।

২০. বিশেষ প্রয়োজনে চাবি ছাড়াও আপনি আপনার মোটর বাইক ব্যাহার করতে পারবেন । সেই ক্ষেত্রেও TASS XTREME  সিস্টেম ১০০% কাজ করবে ।

২১. ১০০% ইমোবিলাইজার হবে যদি ডাকাত বা ছিনতাইকারির কবলে পড়েন । যখন আপনি চাবি ছাড়া বাইক চালাবেন ।

২২. এমন কি , রাতের বেলায় যদি আপনাকে ডাকাত বা ছিনতাইকারী অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে আপনার সকল মুল্যবান সামগ্রী নিয়ে যায় এবং TASS XTREME  এর রিমোট এবং বাইকের আসল চাবিও নিয়ে যায় , তাহলে শুধু মাত্র বাইক থেকে নেমে দৌড় দেয়া মাত্রই, মোটরবাইক সম্পুর্ন রুপে বন্ধ হয়ে যাবে । ডাকাত কোন ভাবেই বাইক স্টার্ট দিতে পারবে না ।

২৩. যদি আপনি GPS TRACKING SYSTEM লাগাতে চান তাহলে আলাদা ভাবে ৪২০০* টাকা সংযোজন করতে হবে । * মাসিক কোন চার্জ নেই । বাইকটি কোথায় আছে সেই লোকেশন জানতে পারবেন । এমনকি বাইক যে চালাচ্ছে সে কার সাথে কি কথা বলছে তাও জানতে পারবেন ।

২৪. কোন বড় কোন মার্কেটে বা মেলায় যদি হাজারো বাইকের মধ্যে আপনি আপনার বাইকটি খুজে না পান, তাহলে রয়েছে লোকেটর সিগনাল এলার্ম ।

২৫. আমাদের সবার কিছু ছেছড়া বন্ধ রয়েছে যারা আপনার কাছ থেকে মোটরবাইক ধার চায়, এবং নাও করতে পারেন না । সেক্ষেত্রে সেই ছেছড়া বন্ধু বাইকে বসলেই বাইকের তেল সাপ্লাই বন্ধ হয়ে যাবে । সেই বন্ধু কিছুই বুজতে পারবে না ।

২৬. চাবি ছাড়া যখন বাইক চালাবেন, তখন যদি ডাকাতের কবলে পড়েন তাহলে মোটরবাইকের সম্পুর্ন ইলেকট্রিক ফাংশন স্থায়ী ভাবে বন্ধ হয়ে যাবে এবং কোন সুইচই কাজ করবে না ।

২৭. *** আমাদের একটি মজার ম্যাজিক ফান অপশন রয়েছে যেটা দিয়ে আপনি আপনার বন্ধুদেরকে যাদু দেখাতে পারবেন এবং মজা করতে পারবেন । মুখ দিয়ে স্টার্ট বল্লে বাইকের ইগনিশন চালু হবে আবার স্টপ বল্লে বাইক বন্ধ হয়ে যাবে । যেটি সিকিউরিটি অপশন না – শুধুমাত্র ফান অপশন ।

২৮. রাতের বেলা যদি নিশ্চিৎ না থাকেন যে বাইক কোন মুডে রয়েছে । তাহলে নিমিষে্ই জানতে পারবেন রিমোটের আলেকিত ডিসপ্লের মাধ্যমে ।

২৯. রিচারজেবল AAA ব্যাটারি ব্যবহার করলে আপনার রিমোটের ব্যাটারি অনায়াসেই কয়েক বছর যাবে ।

৩০. TASS XTREME  রিমোটে রয়েছে এ্যনটেনা সিগন্যাল, লং রেঞ্জ, ব্যাটারি ইনডিকেটর এবং বাইক চুরির চেষ্টা করলে এ্যনিম্যেটেড ভাবে দেখিয়েদিবে যে কে্উ আপনার বাইকের ক্ষতি করার চেষ্টা করছে ।

৩১. আপনি যদি বাইক লক করে নির্দিষ্ট রেঞ্জের বাইরেও চলে যান তার পরেও বাইকে ১২৫ ডেসিব্যাল শব্দ হবে এবং বাইকের মুল চাবি দিয়ে বা বাইপাস করে বাইক স্টার্ট দেয়া যাবে না ।

৩২. TASS XTREME রিমোট সম্পুর্ন ডিজিটাল ডিসপ্লে ।

৩৩. TASS XTREME এ রয়েছে ৯ ভোল্টের ব্যাকআপ ব্যাটারি যা সম্পুর্ন ফ্রি ।

৩৪. বাইকের আসল Wiring এর যেন ক্ষতি না হয় তাই রয়েছে সেফটি ফিউজ ।

৩৫. TASS XTREME সিকিউরিটির সকল তার সিলভার কোটেড তাপ নিরোধোক ।

৩৬. ১ বছরের ওয়ারেন্টি *

 

TASSLOCK Xtreme  GOT DOUBLE COMBINATION LOCK WITH AUTOMATIC BACKUP POWER.  IMPOSSIBLE TO CRACK OR HACK.

ANTI ROLLJAM

3 LAYERS SECURITY.

BACKUP DOUBLE SECURITY INSTANTLY IF MAIN POWER CUT OR FAIL.

 

TASSLOCK HELPLINE: 01715593468

PRICE ONLY 2999 TK, INCLUDING INSTALL AND EVERYTHING. 

Use Facebook to Comment on this Post

^
Copyright & Protected By TASSLOCK